নাটোরের নতুন পর্যটন কেন্দ্র 

নাটোরের কথা মনে পড়লেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে অনেক কিছু। কবি জীবনানন্দ দাশের বনলতা সেন, রানী ভবানী রাজবাড়ি, উত্তরা গণভবন, চলনবিল, পাটুল আর কাঁচাগোল্লা! সেসবের অভিজ্ঞতা ঝুলিতে যোগ করতে প্রতিবছর অনেক পর্যটক এই জেলায় ছুটে যান। এবার নাটোরে পর্যটনে যোগ হলো আরেকটি জায়গা, নাম গ্রীনভ্যালী পার্ক।

 

নাটোরের লালপুর উপজেলায় চালু হওয়া এই পার্কে শিশু-বৃদ্ধ সবাই নিশ্চিন্তে বিনোদনের জন্য যেতে পারেন। প্রায় ৩০ একর জমির উপর বিস্তৃত এই পার্কটিতে রয়েছে- নয়নাভিরাম লেক, অত্যন্ত মনোরম পরিবেশ, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মন্ডিত বিনোদনের ব্যবস্থাসহ অনেক কিছু। পার্কটিতে আরো রয়েছে পিকনিক স্পট, শ্যুটিং স্পট, অ্যাডভেঞ্চার রাইড, কনসার্ট অ্যান্ড প্লে-গ্রাউন্ড, নামাজের সু-ব্যবস্থা, ডেকোরেটর সুবিধা, গাড়ি রাখার ব্যবস্থা, ক্যাফেটেরিয়া ও আবাসিক ব্যবস্থা।

 

বিনোদনের জন্য রয়েছে স্পীডবোট, প্যাডেল বোট, বুলেট ট্রেন, মিনি ট্রেন, নাগরদোলা, পাইরেট শীপ, ম্যারিগোরাউন্ড, হানি সুইং ইত্যাদি। প্রতিটি রাইডের আনন্দ উপভোগ করতে গুনতে হবে ৫০ টাকা। এছাড়া গ্রীনভ্যালী পার্কে প্রবেশ মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে জনপ্রতি ১০০ টাকা।

 

সড়ক পথে দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে লালপুরে আসার সুব্যবস্থা রয়েছে। বাস, সিএনজি, অটোরিকশা ও রিজার্ভ যানবাহনে লালপুর পৌঁছে মাত্র এক কিলোমিটার পাকা রাস্তা। এছাড়া আন্তনগর বা সাধার

?? ট্রেনে আব্দুলপুর রেলওয়ে জংশনে নেমে মাত্র সিএনজি, অটোরিকশা বা ভ্যানে করে পার্কে যাওয়া যাবে। এছাড়া পদ্মা নদীর উপকূলবর্তী জনপদ লালপুর। পদ্মা নদীতে যাতায়াতকারী নৌযানে লালপুর ঘাট থেকে কাছেই এই পার্ক।

 

 

Source

Link